মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

জেলা পরিষদের কার্যাবলী

 

প্রথম তফসিল

প্রথম অংশ

(১) বাধ্যতামূলক কার্যাবলী

[ধারা ২৭(২) দ্রষ্টব্য]

১। জেলার সকল উন্নয়ন কার্যক্রমের পর্যালোচনা।

২। উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভা কর্তৃক গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা।

৩। সাধারণ পাঠাগারের ব্যবস্থা ও উহার রক্ষণাবেক্ষণ।

৪। উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা বা সরকার কর্তৃক সংরক্ষিত নহে এই প্রকার জনপথ, কালভার্ট ও ব্রীজ এর নির্মাণ, রক্ষণাবেক্ষণ এবং উন্নয়ন।

৫। রাসনার পার্শ্বে ও জনসাধারণের ব্যবহার্য স্থানে বৃক্ষরোপণ ও উহার সংরক্ষণ।

৬। জনসাধারণের ব্যবহারার্থে উদ্যান, খেলার মাঠ ও উন্মুক্ত স্থানের ব্যবস্থা ও উহাদের রক্ষণাবেক্ষণ।

৭। সরকারী, উপজেলা পরিষদ বা পৌরসভার রক্ষণাবেক্ষণে নহে এমন খেয়াঘাটের ব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণ।

৮। সরাইখানা, ডাকবাংলা এবং বিশ্রামাগারের ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষণ।

৯। জেলা পরিষদের অনুরূপ কার্যাবলী সম্পদনরত অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সংগে সহযোগিতা।

১০। উপজেলা ও পৌরসভাকে সহায়তা, সহযোগিতা এবং উৎসাহ প্রদান।

১১। সরকার কর্তৃক জেলা পরিষদের উপর অর্পিত উনড়বয়ন পরিকল্পনার বাসনবায়ন।

১২। সরকার কর্তৃক আরোপিত অন্যান্য কাজ।

দ্বিতীয় অংশ

ঐচ্ছিক কার্যাবলী

                    [ধারা ২৭(৩) দ্রষ্টব্য]

(ক) শিক্ষা

১। বিদ্যালয় স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

২। ছাত্রাবাসের জন্য দালান নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ।

৩। ছাত্র বৃত্তির ব্যবস্থা।

৪। শিক্ষক প্রশিক্ষণ।

৫। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অর্থ মঞ্জুরী প্রদান।

৬। শিক্ষামূলক জরিপ গ্রহণ, শিক্ষা পরিকল্পনা প্রণয়ন এবং উহার বাস্তবায়ন।

৭। শিক্ষা উন্নয়নের লক্ষ্যে গঠিত সমিতিসমূহের উন্নয়ন ও সাহায্য।

৮। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা উনড়বয়ন।

৯। স্কুলের শিশু-ছাত্রদের জন্য দুগ্ধ সরবরাহ ও খাদ্যের ব্যবস্থা।

১০। বই প্রকাশনা ও ছাপাখানা বেক্ষণাবেক্ষণ।

১১। এতিম ও দুঃস্থ ছাত্রদের জন্য বিনা মূল্যে অথবা কম মূল্যে পাঠ্য পুসনকের ব্যবস্থা।

১২। স্কুলের বই এবং ষ্টেশনারী মাল বিক্রয় কেন্দ্র রক্ষণাবেক্ষণ।

১৩। শিক্ষার উন্নয়নের সহায়ক অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

(খ) সংস্কূতি

১৪। তথ্যকেন্দ্র স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

১৫। সাধারণ সাংস্কৃতিমূলক কর্মকান্ড সংগঠন।

১৬। জনসাধারণের জন্য ক্রীড়া ও খেলাধুলা উন্নয়ন।

১৭। সরকারী প্রতিষ্ঠান এবং জনসাধারণের ব্যবহার্য মহানে রেডিও ও টেলিভিশন এর ব্যবমহা ও রক্ষণাবেক্ষণ।

১৮। যাদুঘর ও আর্ট-গ্যালারি স্থাপন ও প্রদর্শনীর সংগঠন।

১৯। পাবলিক হল, কমিউনিটি সেন্টার প্রতিষ্ঠান এবং জনসভার জন্য স্থানের ব্যবস্থা।

২০। নাগরিক শিক্ষার প্রসার এবং স্থানীয় সরকার, পললী উন্নয়ন ও পুনর্গঠন, স্বাস্থ্য, সমাজ উন্নয়ন, কৃষি শিক্ষা, গবাদি পশু প্রজনন সম্পর্কিত এবং জনস্বার্থ সম্পর্কিত অন্যান্য বিষয়ের উপর তথ্য প্রচার।

২১। মহানবী (সঃ) এর জন্মদিবস, জাতীয় দিবস, জাতীয় শোক দিবস, শহীদ দিবস ও অন্যান্য জাতীয় অনুষ্ঠান উদ্যাপন।

২২। বিশিষ্ট অতিথিগণের অভ্যর্থনা।

২৩। শরীর চ্চর্চার উন্নয়ন, খেলাধুলায় উৎসাহ দান এবং সমাবেশ ও প্রতিযোগিতামূলক ক্রীড়া ও খেলাধুলার ব্যবস্থা করা।

২৪। স্থানীয় এলাকার ঐতিহাসিক এবং আদি বৈশিষ্ট্যসমূহ সংরক্ষণ।

২৫। সংস্কৃতি উন্নয়নমূলক অন্যান্য ব্যবস্থা।

গ) সমাজ কল্যাণ

 

২৬। দুঃস্থ ব্যক্তিদের জন্য কল্যাণ সদন, আশ্রয় সদন, এতিমখানা, বিধবা সদন এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

২৭। মৃত নিঃস্ব ব্যক্তিদের দাফনের ও অন্তোষ্টিক্রিয়ার ব্যবস্থা করা।

২৮। ভিক্ষাবৃত্তি, পতিতাবৃত্তি, জুয়া, মাদকদ্রব্য সেবন, মদ্যপান, কিশোর অপারধ এবং অন্যান্য সামাজিক অনাচার প্রতিরোধ।

২৯। জনগণের মধ্যে সামাজিক, নাগরিক এবং দেশপ্রেমূলক গুণাবলী উন্নয়ন এবং গৌত্র বা গোষ্ঠিগত, বর্ণগত এবং সম্প্রদায়গত কুসংস্কার নিরুৎসাহিত করা।

৩০। সমাজ সেবার জন্য স্বেচ্ছাসেবকদের সংগঠিত করণ।

৩১। দরিদ্রদের জন্য আইনগত সহায়তা ()।

৩২। নারী ও পশ্চাদপদ শ্রেণীর পরিবারের সদস্যদের কল্যাণমূলক কার্যক্রম গ্রহণ।

৩৩। সালিশী ও আপোষের মাধ্যমে বিরোধ নিস্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহণ।

৩৪। সমাজকল্যাণ ও সমাজ উন্নয়নমূলক অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

ঘ) অর্থনৈতিক কল্যাণ

 

৩৫। আদর্শ কৃষিখামার স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

৩৬। উন্নত কৃষি পদ্ধতি জনপ্রিয়করণ, উন্নত কৃষি যন্ত্রপাতির সংরক্ষণ ও কৃষকগণকে উক্ত যন্ত্রপাতির ধারে প্রদান এবং পতিত জমি চাষের জন্য ব্যবস্থা গ্রহর।

৩৭। শস্য পরিসংখ্যান সংরক্ষণ, ফসলের নিরাপত্তা বিধান, বপনের উদ্দেশ্যে বীজের ঋণদান, রাসায়নিক সার বিতরণ এবং উহার ব্যবহার জনপ্রিয়করণ এবং পশু খাদ্যের মজুদ গড়িয়া তোলা।

৩৮। কৃষি ঋণ প্রদান ও কৃষি শিক্ষার উন্নয়ন এবং কৃষি উন্নয়নমূলক অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

৩৯। বাঁধ নির্মাণ ও মেরামত এবং কৃষি কাজে ব্যবহার্য পানি সরবরাহ, জমানো ও নিয়ন্ত্রণ।

৪০। গ্রামাঞ্চলে বনভূমি সংরক্ষণ।

৪১। ভূমি সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধার এবং জলাভূমির পানি নিস্কাশন।

৪২। বাজার স্থাপন, নিয়ন্ত্রণ এবং রক্ষণাবেক্ষণ।

৪৩। গ্রামাঞ্চলের শিল্পসমূহের জন্য কাঁচামাল সংগ্রহ এবং উৎপাদিত সামগ্রির বাজারজাত করণের ব্যবস্থা।

৪৪। শিল্প-স্কুল স্থাপন, সংরক্ষণ এবং গ্রামভিত্তিক শিল্পের জন্য শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ প্রদান।

৪৫। গ্রাম্য বিপণী স্থাপন ও সংরক্ষণ।

৪৬। সমবায় আন্দোলন জনপ্রিয়করণ ও সমবায় শিক্ষার উন্নতি সাধন।

৪৭। অর্থনৈতিক কল্যাণের জন্য অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

ঙ) জনস্বাস্থ্য

 

৪৮। জনস্বাস্থ্য বিষয়ক শিক্ষার উনড়বয়ন।

৪৯। ম্যালেরিয়া ও সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রকল্প প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন।

৫০। প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ।

৫১। ভ্রাম্যমান চিকিৎসক দল গঠন।

৫২। চিকিৎসা সাহায্য প্রদানের জন্য সমিতি গঠনে উৎসাহ দান।

৫৩। চিকিৎসা-শিক্ষার উন্নয়ন এবং চিকিৎসা সাহায্যদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহে অর্থ মঞ্জুরী প্রদান।

৫৪। কম্পাউন্ডার, নার্স এবং অন্যান্য চিকিৎসা কর্মীদের কাজ ও ডেসপেনসারী পরিদর্শন।

৫৫। ইউনানী, আয়ুর্বেদীয় ও হোমিওপ্যাথিক ডিসপেনসারী প্রতিষ্ঠা, রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিদর্শন।

৫৬। স্বাস্থ্য কেন্দ্র, মাতৃসদন ও শিশু মংগল কেন্দ্র স্থাপন, রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিদর্শন, ধাত্রীদের প্রশিক্ষণ দান এবং মাতা ও শিশুদের কল্যাণের জন্য অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

৫৭। পশু-পাখীর ব্যাধি দূরীকরণ এবং পশু-পাখীদের মধ্যে ছোঁয়াচে রোগের প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ।

৫৮। গবাদি পশু সম্পদ সংরক্ষণ।

৫৯। চারণভূমির ব্যবস্থা ও উন্নয়ন।

৬০। দুগ্ধ সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ, দুগ্ধপল্লী স্থাপন এবং স্বাস্থ্যসম্মত আস্তাবলের ব্যবস্থা ও নিয়ন্ত্রণ।

৬১। গবাদি খামার ও দুগ্ধ খামার স্থাপন ও সংরক্ষণ।

৬২। হাঁস মুরগীর খামার স্থাপন ও সংরক্ষণ।

৬৩। জনস্বাস্থ্য, পশুপালন ও পাখী কল্যাণ উন্নয়নের জন্য অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

 

 

চ)গণপর্ত

 

৬৪। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি সাধন।

৬৫। পানি নিস্কাশন পানি সরবরাহ ব্যবস্থা, ভূ-উপরিস্থ সুপেয় পানির জলাশয় সংরক্ষণ, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ, রাসনা পাককরণ ও অন্যান্য জনহিতকর অত্যাবশ্যকীয় কাজ করা।        ৬৬। স্থানীয় এলাকার নকসা প্রণয়ন।

৬৭। এই আইন বা অন্য কোন আইনের অধীনে ন্যস্ত কোন দায়িত্ব পালনের জন্য প্রয়োজনীয় অথচ এই আইনের অন্যত্র  উল্লেখ নাই এমন জনকল্যাণমূলক অত্যাবশ্যকীয় কাজের নির্মাণ ও ব্যবস্থাপনা।

 

 

ছ)সাধারণ

 

৬৮। স্থানীয় এলাকা ও উহার অধিবাসীদের ধর্মীয়, নৈতিক ও বৈষয়িক উন্নতি সাধনের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

 

(২) দৈনিক কার্যাবলী

অফিসের কার্যক্রম

১। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বেতন-ভাতার বিল ২২ তারিখের মধ্যে প্রস্তুতকরণ।
২। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ভ্রমণ বিল প্রাপ্তির ৩ দিনের মধ্যে অনুমোদনের ব্যবস্থাকরণ।
৩। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বিরতদ্ধে উথ্থাপিত অভিযোগের তদন্ত বিষয়ে ১ দিনের মধ্যে উপস্থাপন করণের ব্যবস্থাগ্রহণ।
৪। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত কার্যক্রম (প্রশিক্ষণ সম্পর্কিত পত্র প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে নথি উপস্থাপন।
৫। ৩য় শ্রেণীর কর্মচারীদের পেনশন সম্পর্কিত কার্যত্রুম (সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর নিকট হতে পেনশন সম্পর্কিত কাগজপত্র প্রাপ্তির ১দিনের মধ্যে নথি উপস্থাপনের ব্যবস্থাগ্রহণ।
৬। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের শ্রামিত বিনোদন ছুটি ও ভাতা মঞ্জুরের আবেদন প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন।
৭। কর্মকর্তাদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিলের অগ্রিম উত্তোলনের আবেদন প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন।
৮। কর্মচারীদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিলের অগ্রিম উত্তোলনের আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থাগ্রহণ।
৯। কর্মচারীদের ল্যাম-গ্র্যান্ট মঞ্জুরীর আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহন।
১০। কর্মচারীদের পদোন্নতির প্রসতাব প্রেরণ (সকল কাগজ পত্র প্রাপ্তির সাথে সাথে উপস্থাপন করা)।
১১। কর্মকর্তাদের অর্জিত ও নৈমিত্তিক ছুটি সংত্রুামত (আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে উপস্থাপন করা)।
১২। ৩য় শ্রেণীর কর্মচারীদের অর্জিত ছুটি (ছুটি ভোগের পর কাজে যোগদান পত্র প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৩। বাজেট প্রণয়ন (যথাসময়ে)।
১৪। কর্মকর্তাদের সিলেকশন গ্রেড এর আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে উপস্থাপন।
১৫। কর্মকর্তাদের চাকরি স্থায়ীকরণের আবেদন ২ দিনের মধ্যে উপস্থাপন।
১৬। কর্মচারীদের চাকরি স্থায়ীকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ( সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৭। কর্মচারীদের টাইম স্কেল মঞ্জুরীর ব্যবস্থাকরণ (সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৮। কর্মচারীদের দক্ষতা সীমা অতিত্রুমের ব্যবস্থা গ্রহণ (সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৯। অত্রাফিস থেকে অনুদান প্রাপ্তির জন্য দাখিলকৃত আবেদনের বিপরীতে অনুমোদিত অনুদানের চেক তাৎক্ষণিকভাবে সেবা প্রত্যাশীকে চেক প্রদান করা হয়ে থাকে।
২০। সমাজকল্যাণ মূলক খাত থেকে অনুদান প্রত্যাশীদেরকেও অনুমোদিত অনুদানের চেক তাৎক্ষণিকভাবে সেবা প্রত্যাশীকে প্রদান করা হয়ে থাকে।

 

নাগরিক সেবা

অভ্যন্তরীণ সেবাঃ
১। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বেতন-ভাতার বিল ২২ তারিখের মধ্যে প্রসতুতকরণ।
২। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ভ্রমণ বিল প্রাপ্তির ৩ দিনের মধ্যে অনুমোদনের ব্যবস্থাকরণ।
৩। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বিরতদ্ধে উথুাপিত অভিযোগের তদমত বিষয়ে ১ দিনের মধ্যে উপস্থাপন করণের ব্যবস্থা গ্রহণ।
৪। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ সংত্রুামত কার্যত্রুম (প্রশিক্ষণ সম্পর্কিত পত্র প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে নথি উপস্থাপন।
৫। ৩য় শ্রেণীর কর্মচারীদের পেনশন সম্পর্কিত কার্যত্রুম (সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর নিকট হতে পেনশন সম্পর্কিত কাগজপত্র প্রাপ্তির ১দিনের মধ্যে নথি উপসহাপনের ব্যবস্থা গ্রহণ।
৬। কর্মকর্তা/কর্মচারীদের শ্রামিত বিনোদন ছুটি ও ভাতা মঞ্জুরের আবেদন প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন।
৭। কর্মকর্তাদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিলের অগ্রিম উত্তোলনের আবেদন প্রাপ্তির ১ দিনের মধ্যে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন।
৮। কর্মচারীদের সাধারণ ভবিষ্য তহবিলের অগ্রিম উত্তোলনের আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ।
৯। কর্মচারীদের ল্যাম-গ্র্যান্ট মঞ্জুরীর আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহন।
১০। কর্মচারীদের পদোন্নতির প্রসতাব প্রেরণ (সকল কাগজ পত্র প্রাপ্তির সাথে সাথে উপস্থাপন করা)।
১১। কর্মকর্তাদের অর্জিত ও নৈমিত্তিক ছুটি সংত্রুামত (আবেদন প্রাপ্তির সাথে সাথে উপস্থাপন করা)।
১২। ৩য় শ্রেণীর কর্মচারীদের অর্জিত ছুটি (ছুটি ভোগের পর কাজে যোগদান পত্র প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৩। বাজেট প্রণয়ন (যথাসময়ে)।
১৪। কর্মকর্তাদের সিলেকশন গ্রেড এর আবেদন প্রাপ্তির ২ দিনের মধ্যে উপস্থাপন।
১৫। কর্মকর্তাদের চাকরি স্থায়ীকরণের আবেদন ২ দিনের মধ্যে উপস্থাপন।
১৬। কর্মচারীদের চাকরি স্থায়ীকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ( সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৭। কর্মচারীদের টাইম স্কেল মঞ্জুরীর ব্যবস্থাকরণ (সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৮। কর্মচারীদের দক্ষতা সীমা অতিত্রুমের ব্যবস্থা গ্রহণ (সিলেকশন কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধামত ৩ দিনের ব্যবস্থা গ্রহণ)।
১৯। অত্রাফিস থেকে অনুদান প্রাপ্তির জন্য দাখিলকৃত আবেদনের বিপরীতে অনুমোদিত অনুদানের চেক তাৎক্ষণিকভাবে সেবা প্রত্যাশীকে চেক প্রদান করা হয়ে থাকে।
২০। সমাজকল্যাণ মূলক খাত থেকে অনুদান প্রত্যাশীদেরকেও অনুমোদিত অনুদানের চেক তাৎক্ষণিকভাবে সেবা প্রত্যাশীকে প্রদান করা হয়ে থাকে।

 

                                                                                 বহি:সেবাঃ


(ক) দরপত্রের মাধ্যমে বাসতবায়িত কাজের বিবরণ।
১। দরপত্র বিজ্ঞপ্তিতে নির্ধারিত তারিখ মোতাবেক দরপত্র গ্রহণ ।
২। দরপত্র বিজ্ঞপ্তিতে নির্ধারিত তারিখ মোতাবেক বক্সখোলা, ওপেনিং মেমো তৈরী করণ।
৩। দরপত্রগুলি ০৭(সাত) দিনের মধ্যে যাচাই-বাছাই করণ।
৪। দরপত্রগুলি ০৭(সাত) দিনের মধ্যে মূল্যায়ন প্রতিবেদন (সি,এস) তৈরী করণ।
৫। পরবর্তী ০৭(সাত) দিনের মধ্যে মূল্যায়ন কমিটির সভা করণ।
৬। ঠিকাদার নির্বাচনের পর ফাইল তৈরী ও ব্যাংক ড্রাফট্ / ব্যাংক গ্যারান্টি জমা করণের জন্য ০২(দুই) দিনের মধ্যে পত্র তৈরী করণ ও প্রেরণ।
৭। পত্র ইস্যুর ১৪(চৌদ্দ) দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ব্যাংক ড্রাফট্/ব্যাংক গ্যারান্টি জমা করতে হবে।
৮। কর্তৃপক্ষের সাথে ০৭(সাত) দিনের মধ্যে চুত্তিুপত্র সম্পাদন করতে হবে।
৯। চুত্তিুপত্র সম্পাদনের পর পরবর্তী ০৩(তিন) দিনের মধ্যে কার্যাদেশ প্রদান।
১০। ঠিকাদারের বিলের আবেদন প্রাপ্তির ০২(দুই) দিনের মধ্যে নথি উপস্থাপন ও পরবর্তী ৩(তিন) দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের সাইট পরিদর্শন, বিল প্রদানের বিষয়ে মমতব্য সহ সিদ্ধামত গ্রহণ এবং পরবর্তী ০১(এক) দিনের মধ্যে অফিস প্রধানের নিকট নথি উপস্থাপন এবং বিল প্রদানের জন্য হিসাব রক্ষকের নিকট নথি প্রেরণ।
১১। জামানত ফেরৎ প্রদানের বিষয়ে ঠিকাদারের আবেদন প্রাপ্তির ০৩(তিন) দিনের মধ্যে নথি উপস্থাপন ও পরবর্তী ০৭(সাত) দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের সাইট পরিদর্শন, জামানত প্রদানের বিষয়ে মমতব্য সহ সিদ্ধামত গ্রহণ এবং পরবর্তী ০৩(তিন) দিনের মধ্যে অফিস প্রধানের নিকট নথি উপস্থাপন এবং বিল প্রদানের জন্য হিসাব রক্ষকের নিকট নথি প্রেরণ।
(ক) প্রকল্প কমিটির মাধ্যমে কাজের বিবরণ।
(খ) প্রথম কিস্তি সংত্রুামতঃ-
১। অত্রাফিস কর্তৃক চাহিত ১ম কিসিত বাবদ (ম্যানেজিং কমিটির রেজুলেশন, প্রকল্প বাসতবায়ন কমিটি, কাজের চাহিদা, ৩০০/= টাকার নন্-জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্প এবং ৫০% অগ্রিম চেয়ে আবেদন) কাগজপত্র প্রাপ্তির পরবর্তী ০৩(তিন) দিনের মধো নথি উপ্সহাপন।
২। পরবতী ০৩(তিন) কার্যা দিবসের মধ্যে অফিস প্রধানের নিকট নথি প্রেরণ
৩। পবর্তী ২(দুই) দিনের মধ্যে হিসাব রক্ষকের নিকট নথি প্রেরণ।
৪। হিসাব রক্ষকের নিকট নথি পৌছানোর ০১(এক) দিনের মধ্যে চেক প্রসওত এবং হস্তান্তর করণ।
(খ) দ্বিতীয় কিস্তি সংত্রুামতঃ-
১। দ্বিতীয় কিসিত প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় (মাষ্টার রোল, জমা খরচ, মাপ বহি, বিল ভাউচার, প্রকল্প কমিটির রেজুরেশন, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রত্যয়ন পত্র এবং চুড়ামত বিলের আবেদন) কাগজপত্র প্রাপ্তির ০৩(তিন) দিনের মধ্যে নথি উপ্সহাপন।
২। নথি উপ্সহাপনের পরবর্তী ০৭(সাত) দিনের মধ্যে সাইট পরিদর্শন পুর্বক প্রতিবেদন সহ অফিস প্রধানের নিকট নথি উপস্থাপন।
৩। পরবর্তী ১(এক) দিনের মধ্যে হিসাব রক্ষকের নিকট নথি প্রেরণ।
৪। পরবর্তী ০১(এক) দিনের মধ্যে চুড়ামত বিল প্রসতুত পূর্বক চেক হস্তান্তর করণ।
(ঘ) সম্পত্তি লীজ প্রদানঃ
১। (ক) কুমিল্লা জেলা পরিষদের ভূমি নতুনভাবে লীজ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে নির্ধারিত আবেদন ফরমে দরখাস্ত করলে দরখাস্ত প্রাপ্তির ৩ (তিন) দিনের মধ্যে তা উপস্থাপন করতে হবে। পরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে সার্ভেয়ার এ বিষয়ে সরেজমিনে তদমত করে প্রতিবেদন পেশ করবেন। সার্ভেয়ারের প্রতিবেদন প্রাপ্তির ৩ (তিন) দিনের মধ্যে নথিতে উপস্থাপন করতে হবে। নথি নির্দেশনা মতে পরবর্তী জেলা পরিষদ উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় পেশ করতে হবে। সভার অনুমোদন প্রাপ্তির ৩ (তিন) দিনের মধ্যে লীজ প্রদান সংত্রুামত বিষয়ে দরখাস্তকারীর বরাবর চুড়ামত পত্র জারী করতে হবে।
(খ) লীজকৃত ভূমির নবায়নের ক্ষেত্রে আবেদন করলে আবেদন প্রাপ্তির ৩ (তিন) দিনের মধ্যে তা উপস্থাপন করতে হবে। সংশ্লিষ্ট ভূমি তদমেতর প্রয়োজন হলে পরবর্তী ৭(সাত) দিনের মধ্যে সার্ভেয়ার এ বিষয়ে সরেজমিনে তদমত করে প্রতিবেদন পেশ করবেন। সার্ভেয়ারের প্রতিবেদন প্রাপ্তির ৩ (তিন) দিনের মধ্যে নথিতে উপস্থাপন করতে হবে।